বায়োলুমিনিসেন্স (Bioluminescence)


সমুদ্রের গভীরে সূর্যের আলো প্রবেশ না করলেও অন্য এক ধরনের আলো দেখা যায়, যার কোনো উত্তাপ নেই । একে বলে বায়োলুমিনিসেন্স।
bioluminescence2
সমুদ্রের 200-1000 মিটার গভীরতার কিছু জীবের দেখা মেলে যারা রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে নিজেদের দেহে আলো তৈরি করতে পারে । এরা হল বায়োলুমিনিসেন্টজীব ।
bioluminescence3
এই সমস্ত জীবেদের দেহ থাকা লুসিফেরিন ও লুসিফারেজ নামক দুই পদার্থ যা O2 এর উপস্থিতিতে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় রাসায়নিক শক্তি পরিবর্তিত হয় আলোকশক্তিতে । তৈরি হয় ঠাণ্ডা আলো বা বায়োলুমিনিসেন্স।
bioluminescence4
এই আলোই এই সমস্ত জীবেদের খাবার খোঁজা, খাদ্যকে আকর্ষণ করা, ছদ্মাবেশ ধারণ, আত্মরক্ষা ইত্যাদিতে সাহায্য করে ।
**MISSION GEOGRAPHY**
ভারতের সবচেয়ে বড়ো ভূগোলের website , যা পুরোটাই বাংলা ভাষায় । আমাদের website পশ্চিমবঙ্গ সহ অসম, ত্রিপুরা এমনকি বাংলাদেশের ভূগোলের ছাত্রদের বা ভূগোল প্রেমীদের ব্যাপক ভাবে সাহায্য করবে । আমরা Digital India র পথ অনুসরণ করে ভূগোলকে Digital করার চেষ্টা করছি ।
Whatsapp15932_n
WhatsApp- 9735337699.
“JOIN YOUR NAME YOUR CITY”
Like Our Facebook Page

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s