Cartographic Techniques SAQ


1. কোনো মানচিত্রে অভিক্ষেপের সবচেয়ে মধ্যবর্তী দ্রাঘিমা রেখাকে বলে – Central Meridian .
2. NATMO এর পুরো নাম হল – National Atlas and Thematic Map Organisation .
3. ঢালের নতি মাপার যন্ত্রের নাম – ক্লাইনোমিটার ।
4. উপগ্রহ চিত্রের ক্ষুদ্রতম উপাদান হল – Pixel .
5. GIS কথাটির পুরো নাম হল – Geographical Information System .
6. Survey of India 1767 সালে স্থাপিত হয় । এই সংস্থার সদর দপ্তর দেরাদুনে অবস্থিত ।
7. ভারতীয় সিরিজের মানচিত্রগুলির R.F. = 1 : 10,00,000 ।
8. আন্তর্জাতিক সিরিজের মানচিত্রগুলিকে মিলিয়ন শিট বলে ।
9. পৃথিবীর দুটি গোলার্ধের মোট মিলিয়ন শিটের সংখ্যা হল 2222 টি ।
10. টপোশিটে সমোন্নতি রেখাগুলি 20 মিটার বা 10 মিটার ব্যবধানে টানা থাকে ।
11. টপোশিটে সূচক সংখ্যার সাহায্যে মানচিত্রটি সঠিক কোন অঞ্চলের তা জানা যায় ।
12. টপোশিটে সূচক সংখ্যা মানচিত্রের উত্তর – পূর্ব কোণে নির্দেশিত হয় ।
13. ভূবৈচিত্র্যসূচকমানচিত্রটি কোন রাজ্যের অন্তর্গত তা মানচিত্রের উত্তরভাগে নির্দেশিত হয় ।
আর কোন জেলার অন্তর্গত তা মানচিত্রের উত্তর – পশ্চিম অংশে দেখানো হয় ।
14. স্কেল ও R.F. মানচিত্রের দক্ষিণভাগে দেখানো থাকে ।
15. ভারতের টপোশিটে অক্ষাংশের মান উত্তরদিকে এবং দ্রাঘিমার মান পূর্বদিকে বৃদ্ধি পায় ।
16. টপোশিটে নদীর পাড়ে কোথাও কোথাও উচ্চতাসহ ‘r’ অক্ষরটি লেখা থাকে । এর অর্থ হল নদী পাড়ের উচ্চতাকে নির্দেশ করা ।
17. মানচিত্রে নদীর পাশে Ferry কথাটি লেখার অর্থ – ওই স্থানে খেয়াপারের বন্দোবস্ত আছে ।
18. টপোশিটে নিত্যবহ নদী নীল রং , অনিত্যবহ নদী কালো রং , বনভূমি বা গাছপালা সবুজ রং , জনবসতি ও সড়কপথ লাল রং , সমোন্নতি রেখা বাদামী রং দ্বারা নির্দেশ করা হয় ।
***Mission Geography***
Suggested by Mission Geography.

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s