BENGAL GEOGRAPHY SAQ


1. বাংলার যে জেলার ওপর দিয়ে কর্কটক্রান্তি রেখা গেছে – নদিয়া, বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ( সূত্র – নববাপু) ।
2. বাংলার পূর্বদিকে অবস্থিত দেশ হল – বাংলাদেশ ।
3. বর্তমানে বাংলার জেলার সংখ্যা হল – 21টি ।
4. উত্তর – পূর্ব ভারতের প্রবেশ দ্বার বলা হয় – শিলিগুড়িকে ।
5. দক্ষিণবঙ্গের প্রবেশ দ্বার হল – ক্যানিং ।
6. বিহার রাজ্যের বিচ্ছিন্ন অংশটি বাংলায় যে জেলা নামে পরিচিত – পুরুলিয়া ।
7. বাংলার ওপর লম্বভাবে সূর্যকিরণ পড়ে – 21 শে জুন ।
8. সুন্দরবন ম্যানগ্রোভ বাদাবন অবস্থিত যে জেলায় – দক্ষিণ 24 পরগনা ।
9. প্রেসিডেন্সি বিভাগের অন্তর্গত জেলাসদর হল – আলিপুর ।
10. ‘Chicken’s Neck’ বলা হয় – উত্তর দিনাজপুরের চোপড়াকে ।
11. ‘City of Joy’ বলা হয় – কলকাতাকে ।
12. বাংলার উত্তরের সমভূমি অংশ হল – বরেন্দ্রভূমি ।
13. বাংলা ও নেপাল সীমান্তে রয়েছে – সিঙ্গলিলা ।
14. বাংলার সর্বোচ্চ শৃঙ্গ – সান্দাকফু ।
15. বাংলার মালভূমি অঞ্চলের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ হল – গোর্গাবুরু ।
16. বাংলায় বালিয়াড়ি দেখা যায় – উপকূলীয় সমভূমিতে ।
17. রাঢ় সমভূমির ভূপ্রকৃতি – তরঙ্গায়িত ।
18. কালিম্পঙ -এর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ হল – ঋষিলা ।
19. বক্স গিরিখাত দিয়ে যাওয়া যায় – ভুটানে ।
20. বক্রেশ্বরের উষ্ণ প্রস্রবণ দেখা যায় – বীরভূমে ।
21. পেডং কথার অর্থ – অর্কিডের শহর ।
22. তরাই শব্দের অর্থ – স্যাঁতসেঁতে ভূমি ।
23. শুশুনিয়া পাহাড় অবস্থিত – বাঁকুড়া জেলায় ।
24. দার্জিলিং পার্বত্য অঞ্চলের সর্বোচ্চ Rail Station হল – ঘুম ।
25. রাঙামাটির দেশ বলা হয় – রাঢ় অঞ্চলকে ।
26. মথুরাখালি পাহাড় অবস্থিত – বীরভূমে ।
27. গঙ্গা দুভাগে বিভক্ত হয়েছে মুর্শিদাবাদের – ধুলিয়ানে ।
28. গঙ্গা বাংলায় প্রবাহিত হয়েছে – 520 কিমি ।
29. বাংলার প্রধান নদী – গঙ্গা ।
30. দামোদরনদকে বলা হয় – বাংলার দুঃখ ।
31. বহরমপুর বিখ্যাত – রেশম শিল্পের জন্য ।
32. রাঢ় অঞ্চলের সবচেয়ে বড়ো শহর হল – বর্ধমান ।
33. বাংলার দুটি প্রধান মৎস্য শিকার কেন্দ্র হল – দিঘা ও জুনপুট ।
34. ভারতে প্রথম পাতাল রেল চালু হয় – কলকাতায় ।
35. হলদিয়া বিখ্যাত – পেট্রোরসায়ন শিল্পের জন্য ।
36. কৃষ্ণনগর বিখ্যাত – মৃৎ শিল্পের জন্য ।
37. জলপাইগুড়ি শহর অবস্থিত – মহানন্দা ও বালাসন নদীর তীরে ।
38. শংকরপুর একটি – মৎস্য বন্দর ।
39. বাংলায় প্রাণী ও মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয় অবস্থিত – কলকাতায় (বেলগাছিয়া) ।
40. লোথিয়ান আইল্যান্ড অভয়ারণ্যটি অবস্থিত – দক্ষিণ 24 পরগনায় ।
41. বক্সা অভয়ারণ্যটি স্থাপিত হয় – 1986 সালে ।
42. বার্ড ফ্লু নির্ণয় কেন্দ্রটি অবস্থিত – কলকাতার বেলগাছিয়ায় ।
43. দমদম বিমান বন্দরের পত্তন হয়েছিল – 1875 সালে ।
44. বাংলায় ধানের বউল বলা হয় – বর্ধমানকে ।
45. জয়ন্তি হল – সংরক্ষিত বনভূমি ।
46. সুন্দরবন হল – সুরক্ষিত বনভূমি ।
47. খোয়াই অঞ্চল দেখা যায় – বীরভূম জেলায় ।
48. উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরের অধিক কাদাযুক্ত মাটি – খিয়র নামে পরিচিত ।
49. তাল শব্দের অর্থ – জলাভূমি ও নিম্নভূমি ।
50. সুন্দরবনের যেসব অঞ্চলে কৃষিকাজ হয়, তাকে – আবাদ বলে ।
51. বাংলায় সবচেয়ে কম বৃষ্টি হয় – বীরভূমের ময়ূরেশ্বরে ।
52. বাংলায় সবচেয়ে বেশি উষ্ণতা দেখা যায় – আসানসোলে ।
53. মৌসুমি রাজ্য বলা হয় – বাংলাকে ।
54. খরার জেলা বলা হয় – পুরুলিয়াকে ।
55. বাংলায় সর্বাধিক বৃষ্টিপাত হয় – বক্সা ডুয়ার্সে ।
56. করোনেশন ব্রিজ অবস্থিত – তিস্তা নদীর ওপর ।
57. কানা নদীর মধ্যবর্তী ও শেষ অংশের নাম – কুন্তী নদী ।
58. দামোদরের প্রধান উপনদীর নাম – বরাকর ।
59. সুন্দরবন অঞ্চলের বৃহত্তম জলবহনকারী নদী হল – মাতলা ।
60. অজয়নদ -এর উৎপত্তি – দুমকা উচ্চভূমি থেকে ।
61. 2011 জনগণনা অনুসারে বাংলার বেশি জনসংখ্যাযুক্ত জেলা হল – উত্তর 24 পরগনা (10082852 জন) ।
62. 2011 জনগণনা অনুসারে বাংলার কম জনসংখ্যাযুক্ত জেলা হল – দক্ষিণ দিনাজপুর (1670931 জন)
63. 2011 জনগণনা অনুসারে বাংলার জনসংখ্যা ছিল – 91347736 জন (পুরুষ=46927389জন এবং মহিলা=44420347 জন) ।
64. জনঘনত্ব = 1029 জন/sq km.
65. জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার এক দশকে = 13.93%
66. স্ত্রী – পুরুষের অনুপাত = 947:1000
67. সাক্ষরতার হার = 77.08% (পুরুষ =82.67% এবং স্ত্রী =71.16%) ।
68. শিক্ষার হার বেশি – পূর্ব মেদনীপুর জেলায় (87.66%) ।
69. শিক্ষার হার কম – উত্তর দিনাজপুর জেলায় (60.13%) ।
70. বাংলার দুটি SEZs হল – হলদিয়া ও আসানসোল শিল্পাঞ্চল ।
71. বাংলার দুটি ম্যানগ্রোভ অরণ্যের গাছ হল – সুন্দরী ও গরাণ ।
72. বাংলার দুটি অর্থকারী ফসল হল – চা ও পাট ।
73. উত্তরবঙ্গের দুটি নদী যার জলপ্রবাহ ব্রহ্মপুত্র নদে মিলিত হয়েছে – তিস্তা ও তোর্সা ।
74. বাংলায় বিটুমিনাস কয়লা পাওয়া যায় – রাণীগঞ্জ ।
75. ভারতের শেফিল্ড বলা হয় – হাওড়া শহরকে ।
76. সুন্দরবনের আতঙ্ক বলা হয় – মাতলা নদীকে ।
77. বাংলার নবীনতম জেলা – কালিম্পং (Feb, 2017) ।
78. বাংলার দীর্ঘতম ব্যারেজ – ফারাক্কা ব্যারেজ ।
79. বাংলার দীর্ঘতম সেতু – রূপনারায়ণ সেতু ।
80. বাংলার দীর্ঘতম রেলওয়ে প্ল্যাটফর্ম হল – খড়গপুর ।

—Author Sourav Sarkar (Director).
©Mission Geography India.

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s