Statistical and Cartographic Techniques SAQ


1. একটি মানচিত্রের RF 1:50000 হলে এবং আয়তনকে 1/9 ভাগ ছোট করা হলে, তার RF হবে = 1:150000

2. জমির মালিকানা জানা যায় – মৌজা মানচিত্র দ্বারা ।
3. ভূমির ঢাল জানা যায় – সমোন্নতি মানচিত্রের দ্বারা ।
4. ডাম্পিলেভেল যন্ত্রের দ্বারা – ভূমির উচ্চতা জানা যায় ।
5. আঞ্চলিক সীমানা জানা যায় – রাজনৈতিক মানচিত্র দ্বারা ।
6. কোনো অঞ্চলের কৌণিক মান মান জানা যায় – Prismatic Compass -এর দ্বারা ।
7. Transit Theodolite -এ ব্যবহৃত হয় – ভার্নিয়ার স্কেল ।
8. মানচিত্র অঙ্কন বিদ্যার কলাকৌশলকে বলে – কার্টোগ্রাফি ।
9. ভারতে ভূবৈচিত্র্যসূচকমানচিত্রের সূচক সংখ্যা = 39 থেকে 91 পর্যন্ত ।
10. ভূবৈচিত্র্যসূচকমানচিত্র আঁকা হয় – ইন্টারন্যাশনাল মডিফায়েড Projection -এ ।
11. গ্রিক শব্দ Topos -এর অর্থ হল – স্থান এবং Grapho -এর অর্থ হল – আমি আঁকি ।
12. কলকাতায় থিমেটিক ম্যাপ তৈরির দায়িত্বে আছে – NATMO ।
13. যে মানচিত্রে এক বা একাধিক রঙের সাহায্যে ভৌগোলিক উপাদানের বণ্টন দেখানো হয়, তাকে – কোরোক্রোমেটিক ম্যাপ বলে ।
14. যে মানচিত্রে বিভিন্ন চিহ্ন বা অক্ষর সংকেতের সাহায্যে ভৌগোলিক উপাদানের বণ্টন দেখানো হয়, তাকে কোরোস্কিমেটিক মানচিত্র বলে ।
15. নক্ষত্র চিত্রকে – উইন্ড রোজ বলে ।
16. সমহারে মানের হ্রাসবৃদ্ধি অনুযায়ী দুটি বিন্দুর অন্তর্বর্তী স্থানের মাননির্ণয়কে – ইন্টারপোলেশন বলে ।
17. একটি মাত্রাহীন মানচিত্রের নাম হল – Dot Map.
18. একটি দ্বিপাক্ষিক মানচিত্রের উদাহরণ হল – Flow Map বা প্রবাহচিত্র ।
19. একটি ত্রিমাত্রিক মানচিত্রের নাম হল – ঘনক চিত্র ।
20. রোমানদের 12 খণ্ডে অঙ্কিত মানচিত্রগুলিকে বলে – Tabula ট্যাবুলা ।
21. কোনো মানচিত্রে অভিক্ষেপের সবচেয়ে মধ্যবর্তী দ্রাঘিমা রেখাকে বলে – Central Meridian .
22. NATMO এর পুরো নাম হল – National Atlas and Thematic Map Organisation .
23. ঢালের নতি মাপার যন্ত্রের নাম – ক্লাইনোমিটার ।
24. উপগ্রহ চিত্রের ক্ষুদ্রতম উপাদান হল – Pixel .
25. GIS কথাটির পুরো নাম হল – Geographical Information System .
26. Survey of India 1767 সালে স্থাপিত হয় । এই সংস্থার সদর দপ্তর দেরাদুনে অবস্থিত ।
27. ভারতীয় সিরিজের মানচিত্রগুলির R.F. = 1 : 10,00,000 ।
28. আন্তর্জাতিক সিরিজের মানচিত্রগুলিকে মিলিয়ন শিট বলে ।
29. পৃথিবীর দুটি গোলার্ধের মোট মিলিয়ন শিটের সংখ্যা হল 2222 টি ।
30. টপোশিটে সমোন্নতি রেখাগুলি 20 মিটার বা 10 মিটার ব্যবধানে টানা থাকে ।
*Next Very Soon.
—Edited by Sourav Sarkar (Director).

©Mission Geography India.

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s